Home CoronaVirus ভয়ঙ্কর ঘটনা, রিপোর্ট আসার আগেই মানিকচক কোয়ারেন্টাইন থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল করোনা রোগীকে

ভয়ঙ্কর ঘটনা, রিপোর্ট আসার আগেই মানিকচক কোয়ারেন্টাইন থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল করোনা রোগীকে

0 second read
0
1,272
কোয়ারেন্টাইন থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল করোনা রোগীকে

মালদহ নিউজ ডেস্ক: মালদহের মানিকচকে দ্বিতীয় করোনা রোগীর হদিস মেলায় চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। প্রশাসনিক উদাসীনতায় করোনা রিপোর্ট আসার আগেই করোনা পজিটিভকে মানিকচক কলেজের ইনস্টিটিউশনাল কোয়ারেন্টাইন থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ। গভীর রাতে ওই রোগীর বাড়ি থেকে পুলিশ ও প্রশাসনের লোকেরা করোনা পজিটিভ বলে তুলে নিয়ে যায় । ঘটনায় চূড়ান্ত অব্যবস্থা অভিযোগ করেছেন এলাকার বাসিন্দারা। করোনা নেই বলে ছেড়ে দেওয়া রোগীকে ফের বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা মানিকচকের দুটি বুথের প্রায় পাঁচ হাজার বাসিন্দা আতঙ্কে রয়েছেন । তাদের অভিযোগ, বুধবার সকাল দশটা নাগাদ মানিকচক কলেজ থেকে ছাড়া ৩ জন । তাদের কারও করোনা পজিটিভ নেই বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। গ্রামে এসে খোশমেজাজে গল্পস্বল্প মিলামিশা করেছে ওই করোনা রোগী । পরিবারের সাথেও গল্প-গুজব করে রাতে ঘুমাতে যাই । গভীর রাত প্রায় একটা নাগাদ পুলিশ ও প্রশাসনের লোকেরা এসে দরজায় কড়া নাড়ে । তাতে ওই করোনা পজিটিভ আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ।পরিবারের লোকেদের বলা হয় রিপোর্ট ভালো নেই । ফলে তাকে ফের নিয়ে যেতে হবে । ঘটনার পর থেকেই এলাকায় আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। গভীর রাতে ওই করোনা পজিটিভকে অ্যাম্বুলেন্সের তুলে মালদহ বাইপাস করোনা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া বলে পরিবারের দাবি ।

গ্রামবাসীদের বক্তব্য, করোনা নেই বলে ছেড়ে দেওয়া ব্যক্তি কি করে ফের করোনা পজেটিভ আক্রান্ত হল ?
গ্রামবাসীদের বক্তব্য, করোনা নেই বলে ছেড়ে দেওয়া ব্যক্তি কি করে ফের করোনা পজেটিভ আক্রান্ত হল ?

প্রথম করোনা পজেটিভের সংস্পর্শে এসেছিল ওই ওই ব্যক্তি । তাদের লালা রস সংগ্রহ করে রিপোর্টের জন্য পাঠানো হয়। অভিযোগ, রিপোর্ট আসার আগেই কোয়ারেন্টাইন থেকে তাদেরকে গ্রামের যেতে বলা হয়েছিল। তাদের তিনজনের মধ্যে একজনের করোনা পজিটিভ হয়েছে বলে প্রশাসনের লোকেরা ১২ ঘণ্টা পর তৎপরতা শুরু করে । ততক্ষণে গ্রামে দিব্যি মেলামেশা করেছিল করোনা রোগী। এনিয়ে এলাকায় আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। তবে এনিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠে এসেছে । গ্রামবাসীদের বক্তব্য, করোনা নেই বলে ছেড়ে দেওয়া ব্যক্তি কি করে ফের করোনা পজেটিভ আক্রান্ত হল ? রিপোর্ট আসার আগে কেনই বা তাদের ছাড়া হল এসব প্রশ্ন গ্রামবাসীদের ভাবাচ্ছে। যদিও এবিষয়ে প্রশাসনের কর্তারা মুখ খুলতে চাননি। আক্রান্তের ভাই ভক্ত সরকার বলেন, রাত একটা নাগাদ পুলিশ এসে দাদাকে নিয়ে যায় । তার করোনা নেই বলে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল। পরে পুলিশ ও প্রশাসন তাকে নারায়ণপুর করোনা হাসপাতালে ভর্তি করেছে শুনেছি । সম্প্রতি, মালদহের মানিকচকে প্রথম করানো পজিটিভ সন্ধান মিলেছিল। পরেই বাহারাল গ্রামে এক মহিলার শরীর সংক্রমণ ধরা পড়ে বলে প্রশাসন সূত্রে খবর। তারপরেই জেলা রেড জোনের আওতায় চলে আসে। এনিয়ে জেলায় মানিকচক সহ তিনটি গ্রামকে কন্টেইনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত করে প্রশাসন। সিল করে দেওয়া হয় মানিকচকের ১৫০ ও ১৫১ নম্বর বুথের পুরো এলাকা। সেই কন্টেইনমেন্ট জোনে হেঁটে হেঁটে বাড়িতে আসে ওই করোনা পজেটিভ।– প্রেস এজেন্সি ।

Load More Related Articles
Load More By Press Agency
Load More In CoronaVirus

Leave a Reply

Check Also

পুরাতন মালদহে তৃণমূল নেতা বহিষ্কার, বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন দলে

মালদহ নিউজ ডেস্ক: পুরাতন মালদহ ব্লকের তৃণমূল পরিচালিত মহিষবাথানি গ্রাম পঞ্চায়েতের  ব…