Home অপরাধ ইসি বৈঠক নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়কে চিঠি কমিশনের, বৈঠকের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন

ইসি বৈঠক নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়কে চিঠি কমিশনের, বৈঠকের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন

5 second read
0
254
চাপে পড়ে ইসি বৈঠকের তারিখ বদল, তবু পিছু ছাড়ল না বিতর্ক

প্রেস এজেন্সি ডেস্ক: নির্বাচন বিধিকে কাঁচকলা দেখিয়ে  রাতারাতি রেজিস্ট্রার নিয়োগের অভিযোগ উঠেছিল আগেই। এবার সেই রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে নির্বাচন বিধি উপেক্ষা করে ইসি বৈঠক ডাকার অভিযোগ উঠল। শুধু তাই নয়, বৈঠকের অ্যাজেন্ডাতে এমন কিছু আলোচ্য বিষয় রাখার অভিযোগ উঠল যা সরাসরি নির্বাচন বিধিকে লঙ্ঘন করে। ইসি বৈঠক নিয়ে জেলা নির্বাচন কমিশন পরপর দুটি চিঠি রেজিস্ট্রারকে পাঠানো সত্ত্বেও ওই বৈঠক বাতিল না করা নিয়ে ইতিমধ্যেই জলঘোলা হতে শুরু করেছে। 

নির্বাচন বিধি লাগু থাকাকালীন ইসি বৈঠক ডেকে ফের বিতর্কের কেন্দ্রে গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়। ২৭ মার্চ কলকাতায় ওই বৈঠক নিয়ে নির্বাচন কমিশন একাধিক চিঠি দিলেও কৌশলে বৈঠক চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর, গত ২৬ শে ফেব্রুয়ারি বিকেলে নির্বাচন ঘোষণার পরই আদর্শ নির্বাচন বিধি লাগু হয়ে গেছে। অথচ ওই দিন রাতে রাজ্যপালের অনুমোদন ছাড়াই গৌড়বঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য নিয়োগের চিঠি দেয় রাজ্য উচ্চশিক্ষা দফতর। উপাচার্যের সেই নিয়োগের বৈধতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। অথচ গৌড়বঙ্গের উপাচার্য পদে বসেই ডঃ শান্তি ছেত্রী ইসি-র অনুমোদন ছাড়াই গত ১৩ মার্চ  বিকেলে কর্তব্যরত রেজিস্ট্রারকে সরিয়ে সেই পদে বসান বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসি অপূর্ব চক্রবর্তীকে। নির্বাচন বিধি লাগু থাকাকালীন এই নিয়োগের বৈধতা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। যদিও সে সবে কর্ণপাত না করে ২৭ মার্চ ইসি বৈঠক ডাকেন নব নিযুক্ত রেজিস্ট্রার। সেই বৈঠকে সাতটি অ্যাজেন্ডা স্থির করা হয়। অভিযোগ ওই সাতটি অ্যাজেন্ডার প্রায় সবকটিই নির্বাচন বিধিকে লঙ্ঘন করে। বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানান জনৈক উত্তম মণ্ডল। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে ২৬ মার্চ একটি চিঠি দিয়ে ( মেমো নং- 44/MCC, Date-26.03.21) নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দেয়, নির্বাচন বিধি লঙ্ঘন করে এমন কোনও অ্যাজেন্ডা নিয়েই ইসি বৈঠকে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে না। এরপর সেই রাতেই আরও একটি চিঠি ( মেমো নং 45/MCC, Date-26.03.21) দিয়ে নির্বাচন কমিশন অ্যাজেন্ডার ৪ ও ৭ নং বিষয়গুলি আলোচনার বাইরে রাখতে বলে। এরপর সেই চিঠির প্রেক্ষিতে উত্তম মণ্ডল ফের নির্বাচন কমিশনে মেইল করে অভিযোগ জানান, ইসি অ্যাজেন্ডার সাতটি বিষয়ই নির্বাচন বিধি ভঙ্গ করছে। তিনি অভিযোগ করেন, ২ নং অ্যাজেন্ডায় নব নিযুক্ত রেজিস্ট্রারের নিয়োগকে নিশ্চিত করার বিষয়ে আলোচনা করার কথা বলা হয়েছে। যা নির্বাচন বিধি ভঙ্গের মধ্যে পড়ে। আবার ৩ নং অ্যাজেন্ডাকে আপাত নিরীহ বিষয় বলে মনে হলেও সেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক অধ্যাপক আধিকারিকের সাসপেনশন ও কনফার্মেশনের বিষয় রয়েছে । সেগুলি নিয়ে আলোচনাও নির্বাচন বিধিভঙ্গের সামিল বলে অভিযোগ। গোটা বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের উত্তরের অপেক্ষা করা হচ্ছে। অথচ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নির্বাচন কমিশনের বিবেচনাধীন বিষয় নিয়ে ইসি বৈঠক চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই ঘটনায় নিন্দার ঝড় উঠেছে রাজ্য জুড়ে। বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ডঃ শান্তি ছেত্রীকে ফোন করা হলে তিনি বলেন,”আমরা নির্বাচন কমিশনের চিঠি পেয়েছি। ইসিতে এমন কিছু রাখা হবে না, যা নির্বাচন বিধি ভঙ্গ করে। “

Load More Related Articles
Load More By Press Agency
Load More In অপরাধ

Leave a Reply

Check Also

ঈদের সকালে মহানন্দায় তলিয়ে গেল যুবক

প্রেস এজেন্সি ডেস্ক: ঈদের সকালে পুরাতন মালদহের মহানন্দা নদীতে স্নান করতে নেমে তলিয়ে গেল য…