Home ঐতিহাসিক রক্তে লাল হল মায়ের বেদি,বর্ষ পরম্পরা আজও অটুট সেন বাড়িতে

রক্তে লাল হল মায়ের বেদি,বর্ষ পরম্পরা আজও অটুট সেন বাড়িতে

0 second read
0
186
রক্তে লাল হল মায়ের বেদি,বর্ষ পরম্পরা আজও অটুট সেন বাড়িতে

প্রেস এজেন্সি ডেস্ক: পুরাতন মালদহ শহরের বাচামারি সেনবাড়ির দুর্গাপুজোয় প্রথা মেনে বলি পর্ব হল। প্রতি বছরই এলাকার বাসিন্দারা মায়ের কাছে মনস্কামনা পুরণের জন্য পাঁঠা নিবেদন করে থাকেন। এ বছরও সেই পরম্পরা অটুট রইল। ঢাকের আওয়াজ পুরোহিতের মন্ত্র উচ্চারণের মধ্য দিয়ে বলি প্রথা দেখতে এলাকাবাসীরা সমবেত হন। প্রসঙ্গত, এই পুজো ঘিরে পৌরাণিক কাহিনী জড়িয়ে রয়েছে। কোনও এক সময় সূর্য উদয়ের আগেই পুরাতন মালদহের সেনবাড়ির পুরোহিত মহানন্দা নদীতে স্নান করছিলেন। সেই সময় গঙ্গা মহানন্দা ঘাটে নৌকা থেকে নামেন এক মহিলা। ঘাটে স্নানরত অবস্থায় পুরোহিত ওই রমনীকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন কোথায় যাবে মা ? উত্তরে উনি বলেছিলেন সেনবাড়ি। কাকতালীয়ভাবে সেন বাড়িতে সেদিন কোনও অতিথি আসেননি। সেদিনই সেনবাড়ির পুরোহিত পুজো করতে এসেছিলেন। পুজোর ফাঁকে পুরোহিত জমিদারকে জিজ্ঞেস করেন আপনার বাড়িতে কে এসেছেন । জমিদার উত্তরে জানিয়েছিলেন কেউ না। সেদিন রাতেই স্বপ্নাদেশ পান সেন জমিদার যে, মা দুর্গা স্বয়ং পায়ে হেঁটে তার বাড়িতে এসেছেন। নদীর ঘাটে কিছু বাসনপত্র তিনি ছেড়ে এসেছেন। স্বপ্নাদেশ পেয়ে ভোরেই নদীর ঘাটে ছুটে যান জমিদার। ঘাটে তিনি দেখেন পান মশলা কৌটো পড়ে রয়েছে। সেদিন থেকেই সেন জমিদার পঞ্চমুন্ডির আসনে দেবীর আরাধনা শুরু করেন। বহু বছর ধরে ওই পুজো হয়ে আসছে সেন বাড়িতে। তৎকালীন জমিদার হাত ধরে এই পুজো নিয়মনিষ্ঠা মেনে হয়। এ বছর নতুন মন্দির প্রতিষ্ঠা করেছেন পুজো উদ্যোক্তারা। সেই মন্দিরের পুজো হবে। পুজো ঘিরে পাঁঠা বলির নিয়ম রয়েছে। সপ্তমী থেকেই বলি শুরু হয়। বিজয়া দশমীতে শোভাযাত্রা সহকারে প্রতিমা বিসর্জন করা হয়।

Load More Related Articles
Load More By Press Agency
Load More In ঐতিহাসিক

Leave a Reply

Check Also

মেয়ের বিয়ের জন্য গহনা জমিয়েছিলেন বাবা, নিয়ে গেল চোর

প্রেস এজেন্সি ডেস্ক:  মেয়ের বিয়ের জন্য গহনা জমিয়েছিলেন বাবা, মেয়ে ক্রমশ বড় হয়ে …