Home অপরাধ ভোট মিটতেই তৃণমূল পরিচালিত মালদহের যাত্রাডাঙা গ্রাম পঞ্চায়েতে অনাস্থা

ভোট মিটতেই তৃণমূল পরিচালিত মালদহের যাত্রাডাঙা গ্রাম পঞ্চায়েতে অনাস্থা

0 second read
0
270
দার্জিলিংয়ে নিখোঁজ হয়ে যাওয়া নাবালিকা উদ্ধার মালদহের একলাখিতে

প্রেস  এজেন্সি ডেস্ক: বিধানসভা ভোট মিটতেই পুরাতন মালদহের যাত্রাডাঙার গ্রাম পঞ্চায়েতে অনাস্থা প্রস্তাব আনল তৃণমূল কংগ্রেসের একাংশ।  পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধেই  অনাস্থা ডাকা হয়েছে।  তৃণমূল পরিচালিত গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রয়েছেন নুর হক।  আড়াই বছর পার হতেই প্রধানের প্রতি অনাস্থা ডেকে  প্রশাসনকে চিঠি দিয়েছেন পঞ্চায়েত সদস্যরা। স্বাভাবিকভাবেই  জেলার রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। যদিও গদি বাঁচাতে প্রধান  তলে তলে এই অনাস্থা প্রস্তাবে পঞ্চায়েত সদস্যদের সাথে গোপন আঁতাত করেছেন বলে অভিযোগ। আরও এক বছর তিনি যাতে প্রধান পদে বহাল থাকেন  সে কারণেই এ অনাস্থা প্রস্তাব বলে মনে করা হচ্ছে। ভোটের দিন থেকে অনাস্থা প্রস্তাবের জেরেই কার্যত উধাও রয়েছেন চার সদস্য বলে গুঞ্জন শুরু হয়েছে।  প্রত্যেকেই প্রধান ঘনিষ্ঠ বলে মনে করা হচ্ছে। প্রধান তাঁর মেজোরেটি সংসদ সদস্যদের নিজের আওতার মধ্যে রেখেছেন বলে অভিযোগ। যদিও তৃণমূল পরিচালিত যাত্রাডাঙা গ্রাম পঞ্চায়েতের  সিংহভাগ সদস্যই তৃণমূলের।  এ পরিস্থিতিতে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।   এতে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে এসেছে। পঞ্চায়েত আইন অনুযায়ী কোনো পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা আনতে গেলে আড়াই বছর পর আনা যায়।  ইতিমধ্যে আড়াই বছর পার হয়ে গিয়েছে।  এছাড়াও একবার কোনো পঞ্চায়েত প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনলে এক বছর  আর অনাস্থা প্রস্তাব আনা যায় না। বর্তমানে যে বিক্ষুব্ধ সদস্যরা প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা এনেছেন সেটি গৃহ না হলে প্রধান সে পদে বহাল থাকবেন। এতে প্রধান তাঁর মেয়াদ এক বছর বাড়িয়ে নিতে পারে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন, মেয়াদ বৃদ্ধির কারণেই তড়িঘড়ি অনাস্থা প্রস্তাব উঠতে পারে।

Load More Related Articles
Load More By Press Agency
Load More In অপরাধ

Leave a Reply

Check Also

পুরাতন মালদহের টাঙনে নৌকাডুবি, মৃত ১

প্রেস এজেন্সি: রবিবার সন্ধ্যায় পুরাতন মালদহের যাত্রাডাঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের নয়া টোলা গ্…